বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কাশ্মীরের জামা মসজিদ বন্ধ করে জুমার নামায পড়তে দেয়নি ভারত জুমার আলোচনায় খতিবদের ডেঙ্গু-গুজব-বন্যা নিয়ে বক্তব্য রাখার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মসজিদে গুলি করতে গিয়ে উল্টো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সাবেক মার্কিন সেনা! ইন্টারনেট সেবা নিতে চাইলে কোরআনে শপথ নিতে হবে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে আয়ের একমাত্র অবলম্বন ভ্যানটি চুরি হয় বিমানবন্দরে লাগেজ হারিয়ে গেলে ফিরে পাওয়ার উপায় আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সাথে হিজরী সন সম্পৃক্ত: চরমোনাই পীর The story of success -Ashraf Ali Sohan চিত্রনায়িকা পরী মণি ও (এডিসি) সাকলায়েনের নতুন ভিডিও ফাঁস, দেখুন গোপালপুরে মসজিদে হামলায় বৃদ্ধ নিহত, সড়ক অবরাধ, আটক দুই কোম্পানীগঞ্জে দিনদুপুরে কলেজছাত্র অপহরণ ৪ দিন পরও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ বানিয়াচংয়ে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের আবিস্কার নিয়ে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত খুলনায় স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ায় যুবক গ্রেফতার

দামামা বাজালো ট্রাম্প: বিশ্ব মুসলিম কিংকর্তব্যবিমুঢ়

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৫৮ Time View

জসিম মুহাম্মদ রুশনী বিনা মেঘে বজ্রের মতোই তোপে আগুন দিলো যুদ্ধবাজ ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইরানি সমরবিদ কাশেম সোলায়মানি হত্যার মাধ্যমে ট্রাম্প তার পূর্বসূরি বুশদেরকেও ছাড়িয়ে গেছে। একটি দেশের পদস্থ একজন সামরিক কর্তাকে এমন বিনা উস্কানিতে খুন করাটা সমরনীতি লঙ্ঘনও।

যুদ্ধের নীতিকে সমীহ করাটা বীরদের চরিত্র, কাপুরুষ তা পারে না। পৃথিবীর ইতিহাসে কোনও মহাবীরকেই পেছন থেকে আক্রমণ করতে দেখা যায়নি। কিন্তু পেছন থেকে ছোঁড়া বর্শা বল্লমে ধরাশায়ী হয়েছেন অনেক বীর মহাবীর। ডোলান্ড ট্রাম্প সেই বেঈমান কাপুরুষদের -ই অনুগামী। তাই সে পেছন থেকে মেরে দামামা বাজালো।

ট্রাম্প পুরো মার্কিন জাতির প্রতিনিধিত্ব করে না, তবে বিশ্বের যুদ্ধবাজ বর্বরদের প্রতিনিধিত্ব করাটা তার দলীয় মতাদর্শ। রিপাবলিক পার্টির জন্ম -ই হয়েছে পৃথিবীকে অশান্ত করার জন্য। রিপাবলিকানরা নেতা পরম্পরায় সেটা অব্যাহত রেখেছে। ট্রাম্প একটু মাত্রা ছাড়িয়েছে।

সমরবিদ সোলায়মানি হত্যার সাথে মুসলিম বিশ্বের সম্পর্কটা কী? সম্পর্ক অবশ্যই আছে। আক্বিদাগত বৈপরীত্যে মুসলিম বিশ্ব বহুধাবিভক্ত হলেও, হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার পর সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ইসরাঈল যে উচ্ছ্বাস দেখিয়েছে তাতে মুসলিম বিশ্বকে বিচলিত করবার মতো যথেষ্ট কারণ রয়ে গেছে।

ওরা বুঝিয়েছে দিয়েছে যে কলেমায়ে তাওহীদের অনুসারী সব মানুষকেই ওরা নিশ্চিহ্ন করবার দুঃস্বপ্ন দেখছে। ইসরাঈলিদের জাতিগত নিপীড়ন পৃথিবীর ইতিহাসে অবিদিত নয়। সেইসাথে সদ্য সাম্প্রদায়িক হয়ে ওঠা ভারতের সাথেও ওদের গোপন ও প্রকাশ্য দহরমমহরম চলছে। আবার সোলায়মানি হত্যার জন্য ওরা ট্রাম্পকে শুভেচ্ছাও জানালো। অথচ খোদ মার্কিন জনগণ -ই এই কাপুরুষোচিত হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়েছে রাস্তায়।

তার মানে ইসরাঈল সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িক হানাহানিকে স্বাগতম জানাচ্ছে সবসময়। সঙ্গতঃ কারণেই বলা চলে – এই উস্কানি মুসলিমদের -ই বিপক্ষে। সন্দেহ আছে কী? ইঙ্গ-মার্কিন আগ্রাসন ইরাককে তছনছ করে দিয়েছে। ইরান নিয়ে ওদের মাথাব্যথাটাও বহু পুরনো। ইরানকে ইরাকের পরিণতির দিকে নিতে পারলে মুসলিম শক্তি আরও খর্ব হবে। আর মুসলিম শক্তিকে খর্বাতিখর্বতর করা মানে সন্ত্রাসবাদী ইহুদি আধিপত্য মাথাচাড়া দেয়া। উন্মাদ ট্রাম্পের সাথে নেতানিয়াহুর মস্তিষ্কগত তফাৎ আছে। নেতানিয়াহু ঘাঁগু মাল।

উন্মাদ ট্রাম্পকে উস্কে দিয়ে খ্রিস্টান শক্তির ক্ষয় করাটাও তার দুরভিসন্ধি। এই দুরভিসন্ধি বুঝবার মতো মগজ ট্রাম্পের নেই। তাই সে মুসলিম শক্তি নিধনে নেমেই পড়বে। কিন্তু বহুধাবিভক্ত মুসলিম সম্প্রদায় কী করবে? ওরা কী “শিয়া” হত্যার আনন্দে বগল বাজাবে? নাকি ভেদাভেদ বিসর্জন দিয়ে পৃথিবী থেকে মুসলিম শক্তি নিধনের অপসমরনীতিকে রুঁখে দেবে? কিংকর্তব্যবিমুঢ় থাকবার সময় যে এটা নয়, তা বুঝলেই মঙ্গল হবে মুসলিম বিশ্বের। যুদ্ধবাজ ট্রাম্প আর গুঁটিবাজ নেতানিয়াহুদের হটিয়ে পৃথিবীতে শান্তির বাতাবরণ তৈরীর দায়িত্বটা আবারও মুসলিমদেরকেই নিতে হবে। সময় কিন্তু এটাই বলছে।

(জসিম মুহাম্মদ রুশনী // শিক্ষক, কবি ও কলামিস্ট)

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

পরিচালনা পর্ষদ

সম্পাদক ও প্রকাশক:
Admin
© ২০২০ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত.মুসলিম ভয়েস কোপেরেটিভ লি.
Design By NooR IT
themesba-lates1749691102