রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাশ্মীরের জামা মসজিদ বন্ধ করে জুমার নামায পড়তে দেয়নি ভারত জুমার আলোচনায় খতিবদের ডেঙ্গু-গুজব-বন্যা নিয়ে বক্তব্য রাখার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মসজিদে গুলি করতে গিয়ে উল্টো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সাবেক মার্কিন সেনা! ইন্টারনেট সেবা নিতে চাইলে কোরআনে শপথ নিতে হবে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে আয়ের একমাত্র অবলম্বন ভ্যানটি চুরি হয় বিমানবন্দরে লাগেজ হারিয়ে গেলে ফিরে পাওয়ার উপায় আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সাথে হিজরী সন সম্পৃক্ত: চরমোনাই পীর The story of success -Ashraf Ali Sohan চিত্রনায়িকা পরী মণি ও (এডিসি) সাকলায়েনের নতুন ভিডিও ফাঁস, দেখুন গোপালপুরে মসজিদে হামলায় বৃদ্ধ নিহত, সড়ক অবরাধ, আটক দুই কোম্পানীগঞ্জে দিনদুপুরে কলেজছাত্র অপহরণ ৪ দিন পরও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ বানিয়াচংয়ে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের আবিস্কার নিয়ে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত খুলনায় স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ায় যুবক গ্রেফতার

ফাঁ’সির মঞ্চে যাবার আগে যা বলেছিলেন বঙ্গবন্ধুর খু’নি ক্যাপ্টেন মাজেদ

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ২৪৬ Time View

ফাঁ’সির মঞ্চে যাবার পূর্বে- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আরও এক হ’ত্যাকারীর মৃ’ত্যুদ’ণ্ডাদেশ কার্যকর হলো। ক্যাপ্টেন আবদুল মজিদ ঝুল’লেন ফাঁ’সির দড়িতে। তাতে বাঙালি জাতির পিতৃহ’ত্যার ক’ল’ঙ্ক কিছুটা হলেও কমলো।

সব খবর সবার আগে পেতে গ্রুপে জয়েন করুন

(১১ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে কার্যকর হয়েছে আবদুল মজিদের মৃ’ত্যুদ’ণ্ডাদেশ। সেই সঙ্গে কেরাণীগঞ্জে স্থাপিত কেন্দ্রীয় কা’রাগা’রেও প্রথম কোনো মৃ’ত্যুদ’ণ্ডাদেশ কার্যকর হয়েছে।

ফাঁ’সি কার্যকরের আগের সময়টুকু কেমন কেটেছে আবদুল মজিদের? তাকে যে কনডেম সেলে রাখা হয়েছিল, সেখান থেকে ফাঁ’সির মঞ্চে নিয়ে যাওয়ার সময়টুকু কেমন ছিল?

কারা সূত্র জানিয়েছে, রাত ১০ টার দিকে মাছ আর সবজি দিয়ে ভাত খেতে দেওয়া হয় ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদকে। সামান্য একটু খেয়ে পুরোটাই রেখে দেন প্লেটে। এরপর পানি পান করে রাতের খাওয়া শেষ করেন তিনি।

এরপর রাত ১১টার দিকে কারা মসজিদের ইমাম মাজেদকে দুই রাকাত নামাজ পড়তে বলেন এবং তওবা পড়ান। তওবা পড়ার সময় চিৎকার করে কাঁদতে থাকেন তিনি।

শেষ ইচ্ছার বিষয়ে জানতে চাইলে মাজেদ কারা কর্মকর্তাদের বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর মতো একজন ব্যক্তিকে মা’রার দুঃসাহস কারও ছিল না। কিন্তু সেই কাজটা আমিসহ আমরা করেছিলাম। আবারও প্রমাণিত হলো পাপ বাপকেও ছাড়ে না। এতদিন বিদেশে থাকতে পারলাম, আর এখন কেন দেশে এলাম, বুঝতে পারছি না। মরণ আমাকে টেনে এনেছে দেশে। ফাঁ’সি আমার কপালে ছিল।’ বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। পরে রাত ১১টা ৫০ মিনিটে কারা সেল থেকে মাজেদকে ফাঁ’সির মঞ্চে নিয়ে যান সহকারী জল্লাদের দল।

এর আগে, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করার সময় মাজেদ বলেছিলেন, আমি আমার কৃতকর্মের ফল হাতে নিয়ে মৃ’ত্যুবরণ করছি। তোমরা যতদিন বেঁচে থাকবে, ততদিন অন্তত ভালো কিছু কোরো। আমি জানি, আমার কা’রণে তোমাদের বেঁচে থাকাটাও অনেক ক’ষ্টের হবে। অনেকে গা’লম’ন্দ করবে। তবুও তোমরা কাউকে কিছু বলবে না।

এদিকে, আবদুল মাজেদের ফাঁ’সি কার্যকর করাকে ঘিরে রাত ১০টা ৫ মিনিটে কা’রাগা’রে প্রবেশ করেন ডিআইজি প্রিজন। রাত ১০টা ১০ মিনিটে প্রবেশ করেন অ্যাডিশনাল আইজি প্রিজন কর্নেল আবরার হোসেন। রাত ১০টা ১৫ মিনিটে প্রবেশ করেন ঢাকা জেলা সিভিল সার্জন।

১০টা ৪৫ মিনিটে প্রবেশ করেন ঢাকা জেলা প্রশাসনের একজন ম্যাজি’স্ট্রেট, রাত ১০টা ৫২ মিনিটে প্রবেশ করেন আইজি প্রিজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তফা কামাল পাশা। রাত ১১টা ২০ মিনিটে ঢাকা জেলা পু’লি’শ সুপার মারুফ হোসেন সরদারও প্রবেশ করেন কেন্দ্রীয় কা’রাগা’রে।

কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রাত ১টার দিকে স্ত্রীসহ পরিবারের সদস্যদের হাতে মাজেদের ম’রদে’হ হস্তান্তর করা হবে। আর মাজেদের পরিবার জানিয়েছে, ম’রদে’হ নেওয়া হবে ভোলায়। সেখানে স্থানীয় প্রশাসনকে ম’রদে’হ দা’ফ’নে সহায়তা করতে বলেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, মাজেদের ফাঁ’সি কার্যকরের আগে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের কা’রাগা’রের বাইরে ঝাড়ু নিয়ে দাঁড়াতে দেখা গেছে। ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে তারা অপেক্ষা করছেন, কখন মাজেদের ম’রদে’হ বের হবে। ম’রদে’হে ঘৃ’ণা প্রকাশ করতেই তারা এসেছেন বলে জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, মাজেদের সঙ্গে তার পরিবারের পাঁচ সদস্যের একটি দল গত ১০ এপ্রিল ঢাকা কেন্দ্রীয় কা’রাগা’রে দেখা করলেও  শনিবার কেউ সাক্ষাতের অনুমতি পাননি।

দীর্ঘ দিন বিদেশে পালিয়ে থাকা আবদুল মাজেদকে গত ৭ এপ্রিল ভোরে রাজধানীর মিরপুর থেকে গ্রে’ফ’তার করে পু’লি’শের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট। এরপর তাকে আ’দাল’তের মাধ্যমে কা’রাগা’রে পাঠানো হয়। ৮ এপ্রিল দুপুরে ঢাকা জজ আ’দা’লত মাজেদের মৃ’ত্যু পরোয়ানা জারি করেন।

পরে রাষ্ট্রপতির কাছে জাতির পিতাকে হ’ত্যার ঘৃ’ণ্য অপ’রাধ স্বীকার করে প্রা’ণভিক্ষা চান মাজেদ। ৮ এপ্রিল রাষ্ট্রপতি সে আবেদন নাকচ করে দিলে তার সাজা কার্যকরে আর কোনো বাধা থাকেনি। শেষ পর্যন্ত ১১ এপ্রিল দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে কার্যকর হলো তার ফাঁ’সির রায়।

সব খবর সবার আগে পেতে গ্রুপে জয়েন করুন 

cover photo, No photo description available.

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

পরিচালনা পর্ষদ

সম্পাদক ও প্রকাশক:
Admin
© ২০২০ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত.মুসলিম ভয়েস কোপেরেটিভ লি.
Design By NooR IT
themesba-lates1749691102