মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাশ্মীরের জামা মসজিদ বন্ধ করে জুমার নামায পড়তে দেয়নি ভারত জুমার আলোচনায় খতিবদের ডেঙ্গু-গুজব-বন্যা নিয়ে বক্তব্য রাখার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মসজিদে গুলি করতে গিয়ে উল্টো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সাবেক মার্কিন সেনা! ইন্টারনেট সেবা নিতে চাইলে কোরআনে শপথ নিতে হবে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে আয়ের একমাত্র অবলম্বন ভ্যানটি চুরি হয় বিমানবন্দরে লাগেজ হারিয়ে গেলে ফিরে পাওয়ার উপায় আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সাথে হিজরী সন সম্পৃক্ত: চরমোনাই পীর The story of success -Ashraf Ali Sohan চিত্রনায়িকা পরী মণি ও (এডিসি) সাকলায়েনের নতুন ভিডিও ফাঁস, দেখুন গোপালপুরে মসজিদে হামলায় বৃদ্ধ নিহত, সড়ক অবরাধ, আটক দুই কোম্পানীগঞ্জে দিনদুপুরে কলেজছাত্র অপহরণ ৪ দিন পরও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ বানিয়াচংয়ে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের আবিস্কার নিয়ে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত খুলনায় স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ায় যুবক গ্রেফতার

দাড়ি ওয়ালা ছেলে ইজ দ্যা বেষ্ট!

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৬১ Time View

আমাদের রাসুল (সাঃ)এর কখনোই এক মুষ্ঠির কম পরিমান দাঁড়ি ছিলো না এবং তাঁর কাপড় কখনোই টাখনুর নিচে নামেনি। তিনি বলেছেন দাঁড়ি লম্বা
রাখতে ও গোঁফ খাটো করতে।তিনি আরো বলেছেন, টাখনুর নিচে কাপড় পড়লে আল্লাহ কিয়ামতের দিন সেই ব্যক্তির দিকে দয়ার দৃষ্টিতে তাকাবেন না
এবং সে অংশ যাবে জাহান্নামে। (বুখারি)

অনেক বোন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার ছেলেকে বিয়ে তো দূরের কথা দেখলেই তাদেরকে নোংরা, জঙ্গল বলে থাকেন। হে আমার প্রিয় বোন, দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবকরা নোংরা, জঙ্গল নয় বরং তাঁরাই সবচেয়ে পবিত্র ও স্মার্ট এবং স্বামী হিসেবে সবচেয়ে যোগ্য।

কারণ:

১।একজন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবকদের গোসল সহ ৫ ওয়াক্ত নামাজের জন্য অন্তত ৬ বারের বেশি হাত মুখ ধুতে হয়। কিন্তু। অন্যান্য ছেলেরা দিনে ১ বার
গোসল করে কিনা সন্দেহ আছে। শীত আসলে তো কথাই নেই।

২) দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবকদের নামাজ এ বেশি সওয়াব-এর আশায় প্রতি ওয়াক্তে দাঁত ব্রাশ বা মেসওয়াক করতে হয়। আপনার পরিস্কার ছেলে বন্ধুদেরজিজ্ঞেস করে দেখেন তো কয়বার দাত ব্রাশ করে ?

৩) দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবকরা সিগারেট, মদ বা যেসব জিনিস থেকে দুর্গন্ধ আসে তা থেকে দূরে থাকে। এমনকি কাঁচা পেঁয়াজ,কাঁচা রসুন পর্যন্ত রাসুল (সাঃ) নিষেধ করেছেন। ফলে মুসলিম সুন্নাতের অনুসারীরা তা থেকে দূরে থাকে। আপনার বাপ, ভাই , ফ্রেন্ড বা যারা এসব খায় তাদের মুখের দুর্গন্ধ কি এতই ভালো লাগে ?

৪) একজন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবককে সুন্নাত অনুযায়ী গায়ে সুগন্ধি ব্যাবহার করতে হয়। আপনার আশেপাশের প্রিয় ছেলেদের গায়ের ঘাম এর দুর্গন্ধ আপনার কি এতইভালো লাগে ?

৫) একজন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার হুজুরকে ঠাণ্ডা থাক আর গরম থাক অজুতে ৫ বার নাক পরিস্কার (পানি দিয়ে) করতেই হয়। আপনার প্রিয় দাড়িবিহীন পুরুষদের ঠাণ্ডা লাগলে একটু সামনে যেয়ে দেখেন তো নাকের আর হাতের অবস্থা কি ?

৬) একজন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবককে সর্বচ্চ ৪০ দিনের মধ্যে অবাঞ্ছিত কেশ পরিস্কার করতে হয়।

৭) একজন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবককে জুম্মার নামাজ এর আগে সুন্নাত মোতাবেক হাতের নখ কেটে ছোট রাখতে হয়। আপনার প্রিয় পুরুষদের নখের ময়লা কি আপনার এতই ভালো লাগে ?

৮) একজন দাড়িওয়ালা দ্বীনদার যুবকদের ৫ ওয়াক্ত সালাতের জন্য সর্বদাই পাক পবিত্র থাকতে হয়। অপবিত্র সে থাকতেই পারে না। এমনকি প্রস্রাব করার পর পানি দিয়ে পূর্ণাঙ্গরূপে পরিস্কার হতে হয়। যদি সে পরিপূর্ণরূপে পরিস্কার না হয় তবে তার কাপড় অপবিত্র হয়ে যাবে। ফলে তার নামাজ বিনষ্ট হয় ৷

(এখন আপনারা একটু ভাবুনতো)

️তবুও ভাই, যা দিনকাল পড়ছে দাঁড়ি রাখলে মানুষ কত কি ভাবে আর তাছাড়া মেয়েরাও পছন্দ করে না, বিয়ে করতে চায় না!

ভাই,ধর্মপ্রচারের কারণে অপছন্দ করলেও আরবের বড় বড় মুশরিক আর কাফিররা পর্যন্ত সেই মুহাম্মদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) দাঁড়িওয়ালা মানুষটাকে ভালোবেসে আল-আমিন মানে সত্যবাদী ডাকত!

আর বিয়ে?

তাঁর অমায়িক আচার-ব্যবহার এবং সততায় মুগ্ধ হয়ে সে সময়কার সম্ভ্রান্ত বংশের বিত্তশালী এবং সুন্দরী হযরত খাদিজা (রাঃ) সেই লম্বা দাড়িঁওয়ালা মানুষটাকে প্রথম বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন এবং বিয়ে করেছিলেন
আর আলহামদুলিল্লাহ্ আজকাল অনেক মেয়েই আছে যারা দাঁড়ি, টাখনুর উপর কাপড় ছাড়া আপনারে বিয়েই করবে না!

আসল কথা এসব করবেন আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য, লোকের কথায় কি আসে যায়রে ভাই!

কিন্তু ভাই এসব যে মানতেই হবে এমন তো কথা নেই ! এগুলো তো সুন্নাত!

ভাইয়া আল্লাহ (সুবঃ) স্পষ্ট করে আমাদের বলেছেন – “রাসূল তোমাদেরকে যা দিয়েছেন,তা গ্রহণ কর এবং যা দেননি যা থেকে নিষেধ করেছেন, তা থেকে বিরত থাক এবং আল্লাহকে ভয় কর।” সূরা হাশর আয়াত নাম্বার:- ০৭

আল্লাহ (সুবঃ) আরো বলেন- “আর তিনি নিজ প্রবৃত্তি থেকে কোন কথা বলেন না। তা তো ওহি,যা তাঁর প্রতি প্রত্যাদেশ হয়। ”সূরা আন নাজম ৩-৪

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন,যে ব্যাক্তি আমার আনুগত্য করে সে আল্লাহ্‌র আনুগত্য করে এবং যে ব্যক্তি আমার অবাধ্যচারণ করে সে যেন আল্লাহরই অবাধ্যাচরণ করে। (বুখারি ও মুসলিম)

ভাই,ইচ্ছা তো হয়ই দাঁড়ি রাখতে, প্যান্ট টাখনুর উপরে পড়তে কিন্তু মাল্টি ন্যাশনাল কম্পানি বা ভালো জায়গা গুলোতে এসব পছন্দ করে না, ভালো জব পাওয়া যায় না

যে চাকরিতে আল্লাহর আদেশ এবং আমার রাসূলের সুন্নাহকে হেয় করে দেখা হয় আর সেটা পালনে বাধা দেয়া হয় আমি কেন সেই চাকরির গোলামী করব ভাই??

এই পৃথিবীতে আল্লাহ্ তাঁর পছন্দের বান্দাদের রিযীকের অভাব রাখেন নাই, হয় তো বা আয়টা একটু কমই হবে কিন্তু আল্লাহর বারাকাহ্ থাকবে অফুরন্ত । আজ এই মূহুর্ত থেকে নিয়্যত করেন, এই মুখে যাতে আর কোন রেজারের আচঁড় না পড়ে আর আজই টাখনুর নিচে প্যান্টের বাড়তি অংশটুকু কমিয়ে নিবেন…..

️ইনশা’আল্লাহ্ ভাই দুআ করবেন.. ভাই সত্যি বলতে এসব ব্যাপারে আমার দুআর চাইতে আপনার ইচ্ছা শক্তির প্রয়োজনটা অনেক অনেক বেশি ! আল্লাহ্ আমাদের প্রতি অসন্তুষ্ট হোন আর আমাদের গুনাহ
গুলোর কাউন্টিং তখনই শুরু হয় যখন আমরা আল্লাহর কোন আদেশ জানার পরও ইচ্ছাকৃত ভাবে যেগুলোকে এড়িয়ে যাই এবং কেয়ারই করি না! আল্লাহ্ তায়ালা যেন আপনাকে এবং আমাকে তাঁর রাসূলের প্রতিটা নির্দেশ সঠিক ভাবে মেনে চলার তৌফিক দিন।


আমিন…..

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

পরিচালনা পর্ষদ

সম্পাদক ও প্রকাশক:
Admin
© ২০২০ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত.মুসলিম ভয়েস কোপেরেটিভ লি.
Design By NooR IT
themesba-lates1749691102