মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কাশ্মীরের জামা মসজিদ বন্ধ করে জুমার নামায পড়তে দেয়নি ভারত জুমার আলোচনায় খতিবদের ডেঙ্গু-গুজব-বন্যা নিয়ে বক্তব্য রাখার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মসজিদে গুলি করতে গিয়ে উল্টো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সাবেক মার্কিন সেনা! ইন্টারনেট সেবা নিতে চাইলে কোরআনে শপথ নিতে হবে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে আয়ের একমাত্র অবলম্বন ভ্যানটি চুরি হয় বিমানবন্দরে লাগেজ হারিয়ে গেলে ফিরে পাওয়ার উপায় আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সাথে হিজরী সন সম্পৃক্ত: চরমোনাই পীর The story of success -Ashraf Ali Sohan চিত্রনায়িকা পরী মণি ও (এডিসি) সাকলায়েনের নতুন ভিডিও ফাঁস, দেখুন গোপালপুরে মসজিদে হামলায় বৃদ্ধ নিহত, সড়ক অবরাধ, আটক দুই কোম্পানীগঞ্জে দিনদুপুরে কলেজছাত্র অপহরণ ৪ দিন পরও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ বানিয়াচংয়ে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের আবিস্কার নিয়ে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত খুলনায় স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ায় যুবক গ্রেফতার

করোনা ভাইরাসেও থেমে নেই তাদের ‘চাল চুরি’

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল, ২০২০
  • ১৮০ Time View

বিশ্বজুড়ে সর্বত্র করোনা । দেশেও ক্রমেই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ইতিমধ্যে মারা গেছেন ২০জন। দেশজুড়ে কার্যত লকডাউন চলছে। এই অবস্থায় দিনমজুর ও নিম্নআয়ের মানুষের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে ত্রাণ সহায়তা ও দশটাকা কেজিতে চাল কেনার সুযোগ দেয়া হয়েছে। তবে এই মহামারিতেও এক শ্রেণির অসাধু জনপ্রতিনিধি ও ব্যবসায়ী তাতে হাত দিয়েছে। কেউ চুরি করে অন্যত্র বিক্রি করছেন, কেউ আত্মসাত করতে গিয়ে ধরা খাচ্ছেন।

সব খবর সবার আগে পেতে গ্রুপে জয়েন করুন 

ইতিমধ্যে ত্রাণ আত্মসাত ও দশ টাকা দরের চাল চুরির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন অনেক জনপ্রতিনিধি, চালের ডিলার ও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা। এদের বেশিরভাগই সরকারি দল ও সহযোগী সংগঠনের নেতা। এক উপজেলায় একাধিকবার চাল চুরি ও আত্মসাতের ঘটনাও ঘটেছে।

যদিও প্রধানমন্ত্রী একাধিকবার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, যারা এই সময়ে সহায়তা নিয়ে দুর্নীতি করবে তাদের বিরুদ্ধে তিনি কঠোর ব্যবস্থা নেবেন। তাতেও থামছে না এই অপকর্ম।

বিশ্লেষকরা বলছেন, এমন অপকর্ম দেশে নতুন নয়। নৈতিকতা নষ্ট হয়ে যাওয়া এবং অতীতে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়ায় করোনার সময়ও এরা অপকর্ম করছে।

ফেইসবুক থেকে ইনকাম করুন !

মার্চের শেষ দিক থেকে দেশে করোনা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। আর তখন থেকেই ধরা পড়তে থাকে এসব অপকর্মকারীরা। এদের কেউ জেলেদের জন্য বরাদ্দ হওয়া চাল অন্যত্র বিক্রি করে দিয়েছেন। কেউ আবার খোলা বাজারের চাল বস্তা পাল্টে অন্যত্র বিক্রি করার সময় ধরা পড়েছেন।

গত সোমবার পটুয়াখালীতে জেলেদের জন্য বরাদ্দকৃত ভিজিএফ-এর চাল চুরির মামলায় সদর উপজেলার কমলাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনির হোসেন গ্রেপ্তার হন। এর আগে একই ঘটনায় চেয়ারম্যানের কাছের লোক মো. জাকির হোসেন ও ব্যবসায়ী সোহাগকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

শুধু মনির নয়, জেলেদের জন্য বরাদ্দ হওয়া ৪৪ মেট্রিক টন চাল আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার হন পাথরঘাটা ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন পল্টু ।

এদিকে সোমবার ঝালকাঠির বাসন্ডা ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনিরের বাসা থেকে মজুদ করা ত্রাণের আড়াই টন চাল জব্দ করা হয়। পরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

একেক জায়গায় যখন বিচ্ছিন্নভাবে চাল চুরির ঘটনা ঘটে তখন নাটোরের সিংড়ার সুকাশ ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন শাহ্, চাল ব্যবসায়ী গোলাম মওলা ও চালের ডিলার লেবু হোসেনও একই অভিযোগে গ্রেপ্তার হন। মঙ্গলবার রাতে একই ‍উপজেলায় ত্রাণের ১৩ বস্তা চালসহ ৬ নং ওয়ার্ড সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহিন শাহ্সহ তিনজনকে আটক করে উপজেলা প্রশাসন। তারা ত্রাণের চাল কিনে অন্যত্র বিক্রির জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন।

এদিকে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ সাইদুর ও তার শ্যালক আনোয়ার হোসেনও সম্প্রতি গ্রেপ্তার হয়েছেন চাল চুরির অপরাধে।

এদিকে দক্ষিণবঙ্গ আর উত্তরবঙ্গে যখন এই অবস্থা তখন নোয়াখালী সদরে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল পাচারের অভিযোগে যুবলীগ নেতা মোছলেহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা।

আর যশোরের শহরতলীর এক গুদামে অভিযান চালিয়ে সরকারি ৮০ বস্তা চাল জব্দ করেছে ডিবি পুলিশ। এসময় দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে চাল চুরির বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলায় যশোরের মণিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খানমকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। তিনি থানায় জিডিও করেছেন।

যখন জনপ্রতিনিধি আর রাজনৈতিক নেতারা চুরির অভিযোগে গ্রেপ্তার হচ্ছেন তখন শরণখোলায় আত্মসাত করে পাচারের উদ্দেশে রাখা ১৮ বস্তা সরকারি চালসহ এক দোকানি গ্রেপ্তার হন।

মাদারীপুরের শিবচরে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল কালোবাজারে বিক্রির জন্য মজুতকরা ৬৮ বস্তা চাল জব্দ করে প্রশাসন। এতে জড়িত আবু বক্কর সিদ্দিকী নামে যাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে ছাত্রলীগের বাঁশকান্দি ইউনিয়ন কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য।

এছাড়া ময়মনসিংগের ত্রিশালে ডিলার আব্দুল খালেক, সুনামগঞ্জে ব্যবসায়ী শওকত আলী ও ডিলার বিপ্লব সরকার, সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে তিনজন এবং শফিকুল ইসলাম ও শহিদুল ইসলাম, রংপুরে তিনজন গ্রেপ্তার হয়েছেন একই ধরণের অভিযোগে। নরসিংদীর মনোহরদীতে একটি রাইস মিল থেকে একশ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার। আর খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় সরকারি গুদামে অবৈধভাবে চাল মজুদ করার অভিযোগে একজন আটক হয়েছেন।

জানতে চাইলে সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘মানুষের নীতি নৈতিকতা বলতে এখন আর কিছু নেই। আর সরকার সবসময় দলীয় লোকদের প্রশ্রয় দেয় এটাও এসবের জন্য একটা কারণ। শুধু করোনা নয়, অন্য সময়ও আমরা দেখেছি এমন লুটপাট, দুর্নীতি করতে। কিন্তু সেগুলোর সঠিক বিচার হয়নি। হলে পরিস্থিতি এমনটা নাও হতে পারতো।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ছাড়া অন্যরা কেউ দায়িত্ব নিয়ে কিছু করছেন না। এটা একটা সিস্টেম হয়ে গেছে। ফলে অপকর্মকারীদের মধ্যে কোনো ভয় কাজ করে না।

সব খবর সবার আগে পেতে গ্রুপে জয়েন করুন 

cover photo, No photo description available.

 

credit: dhakatimes24

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

পরিচালনা পর্ষদ

সম্পাদক ও প্রকাশক:
Admin
© ২০২০ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত.মুসলিম ভয়েস কোপেরেটিভ লি.
Design By NooR IT
themesba-lates1749691102