শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কাশ্মীরের জামা মসজিদ বন্ধ করে জুমার নামায পড়তে দেয়নি ভারত জুমার আলোচনায় খতিবদের ডেঙ্গু-গুজব-বন্যা নিয়ে বক্তব্য রাখার আহ্বান ধর্ম প্রতিমন্ত্রীর মসজিদে গুলি করতে গিয়ে উল্টো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন সাবেক মার্কিন সেনা! ইন্টারনেট সেবা নিতে চাইলে কোরআনে শপথ নিতে হবে মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে আয়ের একমাত্র অবলম্বন ভ্যানটি চুরি হয় বিমানবন্দরে লাগেজ হারিয়ে গেলে ফিরে পাওয়ার উপায় আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সাথে হিজরী সন সম্পৃক্ত: চরমোনাই পীর The story of success -Ashraf Ali Sohan চিত্রনায়িকা পরী মণি ও (এডিসি) সাকলায়েনের নতুন ভিডিও ফাঁস, দেখুন গোপালপুরে মসজিদে হামলায় বৃদ্ধ নিহত, সড়ক অবরাধ, আটক দুই কোম্পানীগঞ্জে দিনদুপুরে কলেজছাত্র অপহরণ ৪ দিন পরও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ বানিয়াচংয়ে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের আবিস্কার নিয়ে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত খুলনায় স্কুল ছাত্রীর নগ্ন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ায় যুবক গ্রেফতার

আজ ১৭ ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস।

Reporter Name
  • Update Time : শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২০
  • ৩৩৬ Time View

 মোঃ ইয়াছিন আরাফাত, দামুড়হুদাঃ আজ ১৭ ই এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। ১৯৭১ সালের ১৭ ই এপ্রিল শপথ নেয়া মুজিবনগর সরকার প্রায় একটা পূর্ণাঙ্গ সরকারের কাজ নিয়ে গঠিত হয়। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের এক উজ্জল অধ্যায় হলো এই মুজিবনগর সরকার। যেভাবে গড়ে উঠে মুজিবনগর সরকার ও শপথ গ্রহণঃ- ১৯৭১ সালের ২৫ শে মার্চ পাকিস্থানি হানাদার বাহিনী গণহত্যা শুরু করলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধিনতা ঘোষণা করেন এবং পাকিস্তান দখলদার বাহিনীর শেষ সৈন্যটিকে বাংলাদেশের মাটি থেকে উৎখাত করে চুড়ান্ত বিজয় অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত দেশবাসীকে সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার আহবান জানান।

এর পর রাত ১.৩০ মিনিটের সময় বঙ্গবন্ধুকে গ্রেফতার করা হয়। এর ফলে যুদ্ধ পরিচালনার জন্য একটি সরকার গঠন অাবশ্যক হয়ে পড়ে। এর পর ১৯৭১ সালের ১০ ই এপ্রিল বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলার মেহেরপুর মহকুমার বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে মুজিবনগর সরকার গঠন করা হয়। সেই সাথে এই সরকার মুজিবনগর সরকার নামে পরিচিতি লাভ করে। বৈদ্যনাথতলার বর্তমান নাম মুজিবনগর। ঐ দিনই আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র এবং ২৬ শে মার্চ ঘোষিত স্বাধীনতার ঘোষণা অনুমোদন করে। মুজিবনগর সরকার ১৯৭১ সালের ১৭ ই এপ্রিল শপথ গ্রহণ করেন।

এসময় দেশি বিদেশি ১২৭ জন সাংবাদিক ও কিছু গন্যমান্য ব্যাক্তি, গণপরিষদের সদস্য ও মুক্তিসেনার উপস্থিতিতে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে মুজিবনগর সরকার শপথ গ্রহণ করেন। শপথবাক্য পাঠ করান অধ্যাপক ইউসুফ আলী ও শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আব্দুল মান্নান।

এরপর প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রীসভার সদস্যবৃন্দ শপথ গ্রহণ করেন। মুজিবনগর সরকারের রাষ্ট্রপতি ছিলেন- শেখ মুজিবুর রহমান, উপ-রাষ্ট্রপতি- সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী- তাজউদ্দিন আহমেদ, অর্থমন্ত্রী এম. মনসুর আলী, স্বরাষ্ট্র, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী- এ. এইচ. এম. কামরুজ্জামান, পররাষ্ট্র ও আইনমন্ত্রী- খন্দকার মোশতাক আহমেদ, প্রধান সেনাপতি- কর্নেল (অব.) এম. এ. জি. ওসমানী, চিফ অব স্টাফ- কর্নেল (অব.) আব্দুর রব, ডেপুটি চিফ অব স্টাফ এবং বিমান বাহিনীর প্রধান- গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ. কে খন্দকার। শপথ গ্রহনের মাত্র ২ ঘন্টা পর পাকবাহিনীর বিমান মুজিবনগরে বোমা বর্ষণ করে এবং মেহেরপুর দখল করে নেয়। মুজিবনগর সরকার শপথ গ্রহন করে সঠিক দিকনির্দেশনা প্রদান করে মুক্তিযুদ্ধে চূড়ান্ত বিজয় অর্জন করে। অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক সমর্থনের মাধ্যমে স্বাধিনতা অর্জন ছিল মুজিবনগর সরকারের বড় সাফল্য ও কৃতিত্ব।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

পরিচালনা পর্ষদ

সম্পাদক ও প্রকাশক:
Admin
© ২০২০ প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত.মুসলিম ভয়েস কোপেরেটিভ লি.
Design By NooR IT
themesba-lates1749691102